পদ্মা সেতুতে ১২তম স্প্যান বসছে আজ

শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা প্রান্তে পদ্মা সেতুতে ১২তম স্প্যান বসছে আজ সোমবার। ২০ ও ২১ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যানটি বসানোর মাধ্যমে সেতুর এক হাজার ৮০০ মিটার দৃশ্যমান হবে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল কাদের মুরাদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে তিন হাজার ৬০০ টন ধারণক্ষমতার তিয়ান-ই ভাসমান ক্রেনে করে স্প্যানটি রওনা হয়েছে। দুপুরের দিকে স্প্যানটি সেতুর ২০ ও ২১ নম্বর পিলারের ওপর বসতে পরে।

এর আগে, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারের ওপর প্রথম স্প্যান, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারের ওপর দ্বিতীয় স্প্যান, ১১ মার্চ ৩৯ ও ৪০ নম্বর পিলারের ওপর তৃতীয় স্প্যান, ১৩ মে ৪০ ও ৪১ নম্বর পিলারের ওপর চতুর্থ স্প্যান, ২৯ জুন ৪১ ও ৪২ নম্বর পিলারের ওপর পঞ্চম স্প্যান, ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি ৩৬ ও ৩৭ নম্বর পিলারের ওপর ষষ্ঠ স্প্যান ও ২০ ফেব্রুয়ারি ৩৫ ও ৩৬ নম্বর পিলারের ওপর সপ্তম স্প্যান, মাওয়া প্রান্তের ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর অষ্টম স্প্যান, জাজিরা প্রান্তে ২১ মার্চ ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর নবম স্প্যান, ১০ এপ্রিল ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারের ওপর দশম স্প্যান, সবশেষ গত ২৩ এপ্রিল ৩৩ ও ৩৪ নম্বর পিলারের উপর একাদশ স্প্যানটি বসানো হয়।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের মূল সেতুতে মোট ২৯৪টি পাইল আছে, যার মধ্যে নদীতে আছে ২৬২টি। ২৯৪টি পাইলে মোট পিলার ৪২টি। পিলারগুলোতে মোট স্প্যান বসবে ৪১টি।

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল আজ সোমবার প্রকাশিত হচ্ছে। ফল প্রকাশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক।

তিনি বলেন, সকাল ১০টায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেবেন বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যানরা। সেখানেই ফলের বিস্তারিত প্রকাশ করবেন শিক্ষামন্ত্রী।

সাধারণত প্রধানমন্ত্রীর হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেন বোর্ড চেয়ারম্যানরা। পরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী ফলাফলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডন সফরে থাকায় এবার তা হচ্ছে না।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন ছাত্রী এবং ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৪১ জন ছাত্র।

এবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। দুপুর ২টার পর থেকে পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবেন।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে পাওয়া যাবে। এ জন্য SSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাসের বছর লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

আর মাদরাসা বোর্ডের ক্ষেত্রে Dakhil লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে আবার স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সাল লিখে পাঠাতে হবে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

এছাড়া কারিগরি বোর্ডের এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষার ফল জানতে ssc লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সাল লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

এছাড়াও www.educationboardresults.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে ফল ডাউনলোড করা যাবে।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন ছাত্রী এবং ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৪১ জন ছাত্র।

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

লেনদেনেে শীর্ষে ন্যাশনাল ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আজ মঙ্গলবারও লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড। আজ কোম্পানিটি ৮৬ কোটি ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, কোম্পানিটি আজ ৮ হাজার ৫৬১ বারে ৫ কোটি ৬২ লাখ ৫৩ হাজার ৩১৭টি শেয়ার হাতবদল করেছে।

এ তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড। আজ কোম্পানিটির ৭ হাজার ৩৬৪ বারে ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৫১ হাজার ৮৭০টি শেয়ার হাতবদল হয়। যার বাজার মূল্য ৭১ কোটি ২৫ লাখ টাকা।

তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক ২ হাজার ৩৮৫ বারে ৪৫ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে।
তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে ইফাদ অটোস ৪৫ কোটি ৩ লাখ টাকা, উত্তরা ব্যাংক ৪২ কোটি ৩ লাখ টাকা, সিটি ব্যাংক ৩৮ কোটি ৪৮ লাখ টাকা, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ৩৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক ৩৬ কোটি ১৭ লাখ টাকা, এক্সিম ব্যাংক ৩৪ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ও এবি ব্যাংক ৩৪ কোটি ৩৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন করেছে।

বিনিয়োগ বার্তা //এল//

শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংকের দর বাড়ার কারণ নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ার দর বাড়ার কোনো কারণ নেই। শেয়ারটির অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কারণ জানতে চাইলে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ এমনটাই জানায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই)।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, শেয়ারটির অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কারণ জানতে চেয়ে গত ১৭ সেপ্টেম্বর, রোববার ডিএসই নোটিস পাঠায়। এর জবাবে কোম্পানিটি জানায়, কোনো রকম মূল্য সংবেদনশীল তথ্য ছাড়াই শেয়ার দর বাড়ছে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ২০ আগস্ট থেকে ব্যাংকটির শেয়ার দর ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে। এ সময়ে শেয়ারটির দর ১৮ টাকা ১০ পয়সা থেকে বেড়ে ২৩ টাকা ৫০ পয়সা পর্যন্ত হয়।

আর শেয়ারটির এই দর বাড়াকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন ডিএসই কর্তৃপক্ষ।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

এক মাসে চালের দাম ২০ শতাংশ বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
গত এক মাসে মাঝারি মানের চালের দাম বেড়েছে ১৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ থেকে ২০ দশমিক ৪১ শতাংশ। আর মোটা ও সরু চালের দাম বেড়েছে ১৮ শতাংশের বেশি। সরকারের বিপণন সংস্থা টিসিবি’র হিসাবেই দাম বাড়ার এ চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

রাজধানীতে বর্তমানে খুচরাবাজারে প্রতি কেজি মোটা চাল (ইরি, গুটি স্বর্ণা) ৫০ থেকে ৫৪ টাকা, বিআর-আটাশ ৫২ থেকে ৫৪ টাকায়, মিনিকেট ৬০ থেকে ৬৪ ও নাজিরশাইল ৬৮ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, একটি সিন্ডিকেট কারসাজি করে চালের দাম বাড়াচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আমদানি শুল্ক কমানোর পাশপাশি বাকিতে ঋণপত্র খোলার সুযোগ দিয়েও অস্থিরতা কমানো যাচ্ছে না। তবে সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সরকার। ইতোমধ্যে অবৈধ মজুতদারদের ধরতে সারাদেশে সব চালের গুদামে অভিযান চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গতকাল সোমবার খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম সচিবালয়ে সাংবাকিদের বলেন, কুষ্টিয়া ও বগুড়ায় বিভিন্ন মিলে অভিযান এবং ওএমএস চালুর ফলে বাজারে চালের দর একটু নিম্নমুখী।

আজ মঙ্গলবার মিল মালিক, আমদানিকারক ও আড়তদারদের সঙ্গে বৈঠক করবে সরকার। খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ছাড়াও এই বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী উপস্থিত থাকবেন।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই ৩ কোম্পানির

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত তিন কোম্পানির অস্বাভাবিক শেয়ার দর বাড়ার পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। কোম্পানিগুলো হচ্ছে- সাফকো স্পিনিং, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ও মেঘনা সিমেন্ট লিমিটেড।

কোম্পানি তিনটির শেয়ারে অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কারণ জানতে চাইলে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ এমনটাই জানায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই)।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, সাফকো স্পিনিংয়ের শেয়ারের অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে কারণ জানতে চেয়ে ডিএসই ও সিএসই গতকাল ১৮ সেপ্টেম্বর নোটিস পাঠায়। আর ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ও মেঘনা সিমেন্টের কাছে গত ১৭ সেপ্টেম্বর নোটিস পাঠায়।

এর জবাবে কোম্পানি তিনটি জানায়, কোনো রকম অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য ছাড়াই শেয়ার দর বাড়ছে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ২৭ আগস্ট থেকে সাফকো স্পিনিংয়ের শেয়ার দর টানা বেড়ে চলেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারটির দর ১৫ টাকা ৩০ পয়সা থেকে বেড়ে সর্বশেষ ১৯ টাকা ৬০ পয়সা পর্যন্ত লেনদেন হয়েছে।

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের শেয়ার দর গত ২০ আগস্ট থেকে টানা বেড়ে চলেছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারটির দর ১৩ টাকা ৫০ পয়সা থেকে বেড়ে সর্বশেষ ১৮ টাকা ৫০ পয়সা পর্যন্ত লেনদেন হয়েছে।

এছাড়া মেঘনা সিমেন্টের শেয়ার দর গত ৪ সেপ্টেম্বর থেকে একটানা বেড়েছে। আর শেয়ারগুলোর এই দর বাড়াকে অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন ডিএসই কর্তৃপক্ষ।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

লভ্যাংশ পাঠিয়েছে এসইএমএলের দুই ফান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
সম্পদ ব্যবস্থাপক স্ট্র্যাটেজিক ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড পরিচালিত দুইটি ফান্ডের লভ্যাংশ পাঠানো হয়েছে ইউনিটহোল্ডারদের বিও হিসেবে। সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) তথ্য অনুযায়ী তারা এই লভ্যাংশ পাঠিয়েছে।

ফান্ড দুটি হলো এসইএমএল লেকচার ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট এবং এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ড।

৩০ জুন, ২০১৭ শেষে এসইএমএল লেকচার ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের ট্রাস্টি ইউনিটহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর পুরোটাই নগদ।

এদিকে একই সময়ের জন্য এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ডের ট্রাস্টি ইউনিটধারীদের জন্য আড়াই লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর পুরোটাই নগদ।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

শেয়ার কিনবে যমুনা ব্যাংকের উদ্যোক্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
পুজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের উদ্যোক্তা আবু খাইর মো. শাখাওয়াত শেয়ার কেনার ঘোষণা দিয়েছেন।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, আবু খাইর ১৫ লাখ শেয়ার কিনবেন। এই উদ্যোক্তা পরিচালক আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজার দরে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার কিনতে পারবেন।

উল্লেখ্য, যমুনা ব্যাংকের উদ্যোক্তা পরিচালকদের হাতে ৫০.২৫ শতাংশ শেয়ার আছে। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১০.১১ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৯.৬৪ শতাংশ শেয়ার আছে।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

দেশে নিবন্ধিত করদাতা সাড়ে ৩০ লাখ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
বাংলাদেশে নিবন্ধিত করদাতার সংখ্যা সাড়ে ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) তথ্য অনুযায়ী গত আগস্ট পর্যন্ত দেশে ইলেকট্রনিক কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) নিবন্ধন করেছেন ৩০ লাখ ৫০ হাজার ৪০৫ জন। এর মাধ্যমে করদাতা সংগ্রহে বড় ধরনের সাফল্য এসেছে বলে মনে করছে এনবিআর।

দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের সঙ্গে কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি এবং সরকারি কর্মকর্তাদের ই-টিআইএন বাধ্যতামূলক করায় নিবন্ধিত করদাতার সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে বলে ধারনা এনবিআরের।

বর্তমানে ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা ৩০ লাখের ওপরে এই তথ্য জানিয়ে এনবিআর সদস্য মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘এর মাধ্যমে প্রমানিত হয়,দেশের নাগরিকরা কর প্রদানে সচেতন হচ্ছেন। এনবিআরের প্রতি জনগনের আস্থা বাড়ছে। হয়রানিমূক্ত পরিবেশে তারা স্বপ্রণোদিত হয়ে ই-টিআইএন নিবন্ধন করছেন।’

প্রতি মাসে অন্তত ৫০ হাজার নতুন করদাতা ই-টিআইএন নিবন্ধন করছেন বলে তিনি জানান। চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের মধ্যে ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা ৩৫ লাখে উন্নীত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

আব্দুর রাজ্জাকের মতে দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের সঙ্গে কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে ই-টিআইএনের সংখ্যা বাড়ছে। এর পাশাপাশি গত অর্থবছর থেকে সরকারি কর্মকর্তাদের ই-টিআইএন বাধ্যতামূলক করায় নিবন্ধিত করদাতার সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে।

করজাল সম্প্রসারণে সরকারের কর্মপরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে এনবিআরের জ্যেষ্ঠ এই কর্মকর্তা বলেন,রাজস্ব আয়ের প্রধান উৎস হিসেবে আয়করকে চিহ্নিত করে ই-টিআইএনধারীর সংখ্যা বাড়ানোর বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে দেশের ৫০ লাখ মানুষকে ২০২১ সালের মধ্যে করজালের আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে। এজন্য উপজেলা পর্যায়ে কর অফিস স্থাপন এবং কর জরিপ কার্যক্রম আরো গতিশীল করা হচ্ছে। পাশাপাশি নতুন আয়কর আইন সহজ এবং যুগোপযোগি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ন জয়ন্তী উদযাপনের আগেই নিবন্ধিত করদাতার সংখ্যা ৫০ লাখ নিয়ে যেতে হলে হলে প্রতিবছর ৭ থেকে ৮ লাখ মানুষকে নতুন করে করজালের আওতায় আনতে হবে। অর্থাৎ ২০২১ সালের মধ্যে নতুন করে আরো ১৯ লাখ ৫০ হাজার মানুষকে করজালের আওতায় আনার প্রয়োজন রয়েছে।

তিনি বলেন, এজন্য করজাল সম্প্রসারণে ন্যুনতম কর দিতে সক্ষম এমন ব্যক্তিদের খুঁজে বের করার জন্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ কর দিতে সক্ষম এমন অনেকেই এখনও করজালের বাইরে রয়ে গেছে। তাদেরকে করজালের আওতায় আনা হবে।

আব্দুর রাজ্জাকের মতে, আয়কর বিভাগকে যেভাবে অটোমেশন করা হয়েছে,তাতে আগামীতে করযোগ্য কেউ আর করজালের বাইরে থাকতে পারবেন না।

উল্লেখ্য, দেশে বর্তমানে ৩০ লাখ ৫০ হাজার ই-টিআইএনধারীর মধ্যে করদাতার সংখ্যা মাত্র ১২ লাখ। গত ১ জুলাই থেকে ব্যক্তিশ্রেণীর করদাতাদের আয়কর বিবরণী দাখিল শুরু হয়েছে। চলবে আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

ডিএসসিতে লেনদেনে সেরা ব্যাংক খাত

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:
সমাপ্ত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করছে ব্যাংক খাত। ডিএসইতে মোট লেনদেনের ২৯ শতাংশ অবদান রয়েছে এই খাতে।

লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ লিমিটেড সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, পুরো সপ্তাহে ব্যাংক খাতে ৩১৮ কোটি ৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ব্যাংক বর্হিভূত আর্থিক খাত ১৪ শতাংশ লেনদেন করে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। সপ্তাহজুড়ে আর্থিক খাতে ১৪৭ কোটি ৪১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এই খাতে।

লেনদেনের শীর্ষে থাকা অন্য খাতগুলোর মধ্যে ওষুধ-রসায়ন ও প্রকৌশল খাতে ৮ শতাংশ, জ্বালানি-বিদ্যুৎ খাতে ৭ শতাংশ, সিমেন্ট, বিবিধ ও সাধারণ বিমা খাতে ৩ শতাংশ, সিরামিক, ট্যানারি, টেলিকমিউনিকেশন ও খাদ্য আনুসঙ্গিক খাতে ২ শতাংশ করে লেনদেন হয়েছে।

এছাড়া আইটি, বিমা ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতে ১ শতাংশ করে লেনদেন হয়েছে।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//