স্থগিত হয়ে গেলো এশিয়া কাপ

করোনায় একের পর এক টুর্নামেন্ট ও সিরিজ স্থগিত হচ্ছে। এবার স্থগিত হয়ে গেলো ২০২০ সালের এশিয়া কাপও। বৃহস্পতিবার এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এই পরিস্থিতিতে ‘ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা, দেশভেদে কোয়ারেন্টাইনের বাধ্যবাধকতা, স্বাস্থ্য-ঝুঁকির কথা ভেবে’ এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে এসিসি।

গতকাল নিজের ৪৮তম জন্মদিনের দিনে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী দাবি করছিলেন, এশিয়া কাপ বাতিল হয়ে গেছে। সেটির বিরোধিতা করে পিসিবির মিডিয়া পরিচালক সামিউল হাসান বলে বসেন, ‘এশিয়া কাপ বাতিল ঘোষণা সৌরভ গাঙ্গুলী করতে পারেন না বা সিদ্ধান্ত দিতে পারেন না। এটির সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা শুধু এসিসির।’ অথচ একদিন পরই এ নিয়ে সত্যতা জানালো এসিসি-ই।

সামিউলের ক্ষোভ প্রকাশ করার যথেষ্ট কারণও আছে। কেননা, এশিয়া কাপ বাতিল হওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলই (এসিসি)। যার সভাপতি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান।

বৃহস্পতিবার এশিয়া কাপ নিয়ে সৌরভের দাবির বিরোধিতা করে সামিউল হাসান আরও বলেছেন, ‘সৌরভ গাঙ্গুলী যে বক্তব্য দিয়েছেন এই কার্যবিধিতে সেটির গুরুত্ব নেই। তিনি যদি প্রতি সপ্তাহেই এ নিয়ে কথা বলেন তবু তার মধ্যে সারবত্তা থাকে না।’

শুধু পাকিস্তান নয়, বাংলাদেশও সৌরভের বক্তব্যের ব্যাপারে দ্বিমত পোষণ করেছিল। দুটি দেশই বলার চেষ্টা করেছে, এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার কেবল এসিসিরই আছে। অবশেষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এসিসি সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এশিয়া কাপ স্থগিতের ঘোষণা দিলো।

করোনার এই সময়টাতে এশিয়া কাপ নিয়ে কয়েক দফা মিটিং হয়েছিল। শুরুতে যথাসময়ে টুর্নামেন্ট আয়োজন করার ইচ্ছে থাকলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে সেখান থেকে সরে এসেছে এসিসি। বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, ‘ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফ, বাণিজ্যিক সহযোগী, দর্শকদের নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকির বিষয়টি তাৎপর্যপূর্ণ মনে হয়েছে। এ কারণে আমরা কোন ঝুঁকি না নিয়ে ২০২০ সালের এশিয়া কাপ স্থগিত করেছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এই টুর্নামেন্টটি সবার আগে প্রাধান্য পাবে।’

এসিসি ২০২১ সালের জুনে এ টুর্নামেন্ট আয়োজনের আশা করছে। এমনিতে এ বছরের টুর্নামেন্টের আয়োজক পাকিস্তান হলেও পিসিবি ও এসএলসি আয়োজনের স্বত্ব অদল-বদল করেছিল। ফলে এবারের টুর্নামেন্ট আয়োজন করবে শ্রীলঙ্কা।

এসিসি বলছে, ২০২১ সালে শ্রীলঙ্কাই এ টুর্নামেন্ট আয়োজন করবে। তারপরের এশিয়া কাপ অর্থাৎ ২০২২ সালের এশিয়া কাপ হবে পাকিস্তানে।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *