ভালো কিছু করতে গেলে চ্যালেঞ্জ আসবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

61

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, সততা ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে সরকারের লক্ষ্য অর্জন করতে হবে। গতানুগতিক কাজের বাইরে গিয়ে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে হবে। চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা না করলে ভালো ও নতুন কিছু করা যায় না।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে সফলভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদেরও একই ভাবে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে কাজ করতে হবে। ভালো কিছু করতে গেলে চ্যালেঞ্জ আসবে।

শনিবার ( ২২ জুন) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে অধীনস্থ বিভাগ ও সংস্থা সমূহের প্রধানদের সঙ্গে ২০১৯-২০২০ সময়ের জন্য বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

আরও পড়তে পারেন :  গৃহঋণ ২ কোটি টাকা পর্যন্ত বর্ধিত করায় রিহ্যাবের ধন্যবাদ

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, উন্নয়নের নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে আমাদের সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। ২০৪১ সালে উন্নত দেশে পরিণত হতে হলে কঠোর পরিশ্রমের বিকল্প নেই। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে আন্তরিকতার সঙ্গে সবাইকে কাজ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য সচিব মো. মফিজুল ইসলাম মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন, বাংলাদেশ চা বোর্ড, রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর, আমদানি ও রফতানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দফতর, যৌথ মূলধনী কোম্পানি ও ফার্ম সমূহের নিবন্ধকের কার্যালয়, ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) এবং বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিটিউটেরর প্রধানদের সঙ্গে এ বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

আরও পড়তে পারেন :  দেশে চাহিদার চেয়ে ২ লাখ ২৪ হাজার টন লবণ বেশি

অনুষ্ঠানে রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর, টিসিবির চেয়ারম্যান ব্রি. জেনারেল মো. হাসান জাহাঙ্গীরসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও অধীনস্থ বিভিন্ন সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here