বিধানসভা নির্বাচন: ফের দিল্লির সিংহাসনে কেজরিওয়াল!

59

নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে আবারও দিল্লির মসনদ দখল করতে চলেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দল আম আদমি পার্টি (আপ)। ফলে তৃতীয়বারের মতো দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হতে চলেছেন জনপ্রিয় এই নেতা। মঙ্গলবার সকালে বিধান সভা নির্বাচনে ভোট গণনা শুরু হওয়ার পর এই ইঙ্গিতই মিলছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে দিল্লি বিধানসভা নির্বাচন ২০২০-র ভোটগণনা। প্রাথমিক গণনার হিসেবে তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির থেকে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে আম আদমি পার্টি। এখনও পর্যন্ত আপ ৫০টিরও বেশি আসনে এগিয়ে। বিজেপি এগিয়ে মাত্র ১৬টি আসনে। এদিনই সন্ধ্যার মধ্যে ফলাফল ঘোষণা হওয়ার কথা। ২১টি গণনাকেন্দ্রে ভোটগণনা হচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন :  করোনা ভাইরাসে মৃত বেড়ে ২৩৬০, ডব্লিউএইচও’র উদ্বেগ

এর আগে শনিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ভোট পড়েছিল ৬২.৫৯ শতাংশ। ভোট শেষ হওয়ার পর সবক’টি বুথ-ফেরত জরিপই জানিয়েছিলো যে, নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে তৃতীয়বারের মতো সরকার গড়তে চলেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দল। সেই জরিপ এবার সত্যি হতে চলেছে।

দিল্লি-সহ গোটা দেশ জুড়ে যখন নয়া নাগরিকত্ব আইন (ক্যাব) ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির (এনআরসি)বিরুদ্ধে পথে নেমেছে আম জনতা— তখন দিল্লি নির্বাচনের এই ফলাফলকে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। আপের এক নেতার কথায়, ‘হিন্দু-মুসলমান বিভেদের রাজনীতি, মেরুকরণ ছেড়ে মানুষ যে কেজরিওয়ালকেই বেছে নিয়েছেন, সেটাই বড় পাওনা।’

আরও পড়তে পারেন :  হিন্দুধর্ম কখনোই মুখের ওপর দরজা বন্ধ করে দেয় না: মমতা

২০১৩ সালে কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মিলিয়ে প্রথমবারের মতো দিল্লির সিংহাসনে আসীন হন আপ নেতা। এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। গতবার নির্বাচনে একক সংখ্যারিষ্ঠতা ফের ক্ষমতায় আসে কেজিরিওয়ালের দল আপ পার্টি। তার জনপ্রিয়তায় যে ভাটা পড়েনি এবারের নির্বাচন তারই প্রমাণ। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দল বিজেপিকে ঝাড়ুপেটা করে উড়িয়ে দিয়ে তৃতীয়বারের মতো দিল্লির সিংহাসনে আসীন হচ্ছেন কেজরিওয়াল।

প্রসঙ্গত কেজরিওয়ালের নির্বাচনী প্রতীক ঝাড়ু। তিনি দুর্নীতি বিতাড়িত করার প্রত্যয় নিয়ে নিজ দলের জন্য শুরু থেকেই এই প্রতীকটি বেছে নিয়েছেন।

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

আরও পড়তে পারেন :  ইরানে পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষে চলছে গণনা

 

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here