বিতর্কিতরা আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে লাভ নেই: কাদের

62
kader

গোয়েন্দা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে যাচাই-বাছাই করে নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে। আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণে বিতর্কিতদের প্রার্থী হয়ে কোনো লাভ হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যৌথ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা জানান ওবায়দুল কাদের। ৩০ নভেম্বর ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সভার আয়োজন করা হয়।

এ সময় দলের দুই মহানগরের নেতাকর্মীর উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, সম্মেলনের ফরম্যাট নেত্রীর নির্দেশ মতো আপনাদের জানিয়ে দিয়েছি। সম্মেলনে কে সভাপতিত্ব করবেন, কে স্বাগত বক্তব্য দেবেন সেটা ঠিক করা হয়েছে। কেউ কারও বিরুদ্ধে কাদা ছোড়াছুড়ি করবেন না। প্রতিযোগিতা থাকবে, প্রার্থী হতে পারবে, কিন্তু কারও বিরুদ্ধে কেউ অপপ্রচার চালাবেন না। মনে রাখবেন, শেখ হাসিনা ছাড়া আওয়ামী লীগে আমরা কেউ অপরিহার্য না। সম্মেলনে একাধিক প্রার্থী থাকলে নিজেদের মধ্যে সমঝোতা করার সুযোগ দেওয়া হবে। একমত হতে না পারলে নেত্রীর পরামর্শ নিয়ে তার নির্দেশে কমিটি ঘোষণা করা হবে।

আরও পড়তে পারেন :  ভিপি নুরকে উলঙ্গ করে পেটাবেন ছাত্রলীগ নেতা!

সভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, একাধিক প্রার্থী হলে সবাই যদি ঐক্যবদ্ধ হতে না পারে তখন আমাদের নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সঙ্গে আলোচনা করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হবে। যেদিন সম্মেলন সেদিনই সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হবে। এবার আর দেরি করা হবে না। তবে, বিতর্কিত লোককে প্রার্থী করে লাভ হবে না। দল ভারী করার জন্য বিতর্কিতদের প্রার্থী করবেন না। নেত্রীর কাছে গোয়েন্দা রিপোর্ট আছে। কার কী অবস্থা, কী অপকর্ম আছে, সব জানা। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে যাচাই-বাছাই করে কমিটি দেওয়া হবে। বিতর্কিতদের প্রার্থী হয়ে কোনো লাভ হবে না।

আরও পড়তে পারেন :  আসছে রদবদল, পদ হারাবেন ব্যর্থ মন্ত্রীরা: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগে কেউ বাদ পড়ে না, নেতৃত্বের পরিবর্তন হয়। যে অপকর্ম করেছে, সে নেতৃত্ব থেকে বাদ যাবে। যারা ক্লিন ইমেজের তারা তো বাদ যাবে না। রাজনীতিতে ধৈর্যহারা হলে হবে না। ত্যাগ স্বীকার করলে আজ হোক কাল হোক আওয়ামী লীগে মূল্যায়ন হবেই।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। আরও বক্তব্য রাখেন দলের কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান ও দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ।

আরও পড়তে পারেন :  দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থনীতিকে ধ্বংস করা হয়েছে: ফখরুল

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here