বাংলা ভাষার জয়ধ্বনীতে মূখরিত ইন্দো-বাংলার মিলন মেলা

74

মো:সাহিদুল ইসলাম শাহীন,বেনাপোল(যশোর):

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আমাদের মানে বাঙ্গালীদের জন্য একটি বিশেষ দিন। এই দিনে আমরা আমাদের প্রিয় ভাষা বাংলাকে আমাদের মাতৃভাষা হিসেবে অর্জন করতে পেরেছি,আর এই বিশাল অর্জনের পিছনে ছিলো বহু বাঙ্গালীর প্রাণ বিষর্জন,তাদের মধ্যে অন্যতম ছিল সালাম,রফিক,জব্বার,বরকত সহ আরো অনেকে।

দিনটি যথাযথ ভাবে পালনের লক্ষ্যে দেশের আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট বেনাপোলে প্রায় দুইযুগ ধরে বাংলাদেশ এবং ভারতের দুই বাংলার বাংলা ভাষাভাষি মানুষ একত্রে মাতৃভাষার এই দিনটি উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে নো-ম্যান্সল্যান্ডে উদযাপন করে থাকে।

দিবসটি উদযাপনের শুরু থেকে নিজ নিজ দেশের উদ্যোগে নিজ দেশের সীমানায় পালিত হয়ে আসছিল,এরপর গত পরপর দুটি বছর ইন্দো-বাংলার যৌথ উদ্যোগে ভারতের সীমানায় দিবসটি পালিত হয়। এবার ভারতের অভ্যন্তরীন কিছু সম-সাময়িক ঘটনাবলীর কারনে দুই বাংলার একুশ উদযাপন কমিটির সিদ্ধান্তে এবার নিজ নিজ দেশের সীমানায় নিজ উদ্যোগে দিবসটি পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।
শুক্রবার(২১শে ফেব্রুয়ারী) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনের লক্ষ্যে শার্শা উপজেলার একুশ উদযাপন কমিটি’র প্রধান তথা ৮৫,যশোর-১শার্শা আসনের এমপি শেখ আফিল উদ্দীন এর নেতৃত্বে বেনাপোল সীমান্ত এলাকায় অনেক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হয়।

আরও পড়তে পারেন :  বিএসএমএমউতে করোনাভাইরাস টেস্ট করানোর সুযোগ

প্রায় একশো বছর ধরে দাড়িয়ে থাকা শিশু গাছটির তলদেশে বিশাল আকৃতিব একুশে মঞ্চ তৈরী করা হয়,যেখানে দুই বাংলার প্রতিনিধিবর্গ অংশ নেন। এর আগে সকাল ৮টার দিকে দুই দেশের প্রতিনিধিবর্গ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে নো-ম্যানস ল্যান্ডে নির্মিত শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান,এরপর তারা নিজ নিজ সীমানার মঞ্চে আলোচনায় অংশ নেন।
বাংলাদেশ সীমানায় আলোচনার আয়োজনে মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী জনাব স্বপন ভট্টাচার্য,বিশেষ অতিথিদের মধ্যে ছিলেন-৮৫,যশোর-১ শার্শা আসনের এমপি শেখ আফিল উদ্দীন,বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার-মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরী,যশোর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট-মো:শফিউল আরিফ,যশোর জেলা পুলিশ সুপার-মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন,পিপিএম,শার্শা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা-পুলক কুমার মন্ডল,৪৯ ব্যাটালিয়ন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ(বিজিবি)’র যশোর অধিনায়ক,যশোর জেলা আ’লীগ সভাপতি-শহিদুল ইসলাম মিলন,শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান ও আ’লীগ সভাপতি-বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু,শার্শা উপজেলা আ’লীগ সাধারন সম্পাদক-মোহাম্মদ নুরুজ্জামান।

আরও পড়তে পারেন :  প্রতি উপজেলার দুজনের নমুনা পরীক্ষার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ভারতের প্রতিনিধিদের মধ্যে ছিলেন প্রধান অতিথি-শ্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক,পশ্চিমবঙ্গ সরকারের খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী,শ্রী শঙ্কর আঢ্য,পৌর প্রধান,বনগাঁ পৌরসভা,শ্রী গোপাল শেঠ,মেন্টর জেলা পরিষদ,উত্তর ২৪ পরগুনা ভারত,শ্রীমতি রিঙ্কু দে দপ্ত,সিআইসি,দমদম পৌরসভা।
এদিকে, বাংলা ভাষার শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আজ সকালে বেনাপোল মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে নির্মিত শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় সীমান্ত প্রেসক্লাব বেনাপোল এর সাংবাদিকবৃন্দ।

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

 

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here