করোনায় বাংলাদেশকে ৭৩২ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে আইএমএফ

89

করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলায় বাংলাদেশের স্বাস্থ্য, সামাজিক সুরক্ষা এবং সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য আর্থিক সহায়তা দিতে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) নির্বাহী পরিষদ মোট ৭৩ কোটি ২০ লাখ ডলার জরুরি সহায়তা অনুমোদন দিয়েছে।

জরুরি আমদানি-রফতানির ভারসাম্য এবং অর্থবছরের ঘাটতি মেটাতে আইএমএফ র‌্যাপিড ক্রেডিট ফ্যাসিলিটি এবং র‌্যাপিড ফিন্যান্সিং ইনস্ট্রুমেন্ট (আরএফআই) এর অধীনে বাংলাদেশকে এই জরুরি সহায়তা অনুমোদন করেছে। খবর বাসসের।

আইএমএফের সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, র‌্যাপিড ক্রেডিড ফ্যাসিলিটি’র (আরসিএফ) অধীনে স্পেশাল ড্রয়িং রাইটস (এসডিআর) হিসোবে ১৭৭.৭৭ মিলিয়ন (প্রায় ২৪৪ মিলিয়ন অথবা কোটার ১৬.৬৭ শতাংশ) এবং আরএফআই অধীনে পারচেস অব এসডিআর হিসাবে ৩৫৫.৫৩ মিলিয়ন ( যা প্রায় ৪৮৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অথবা কোটার ৩৩.৩৩ শতাংশ) অনুমোদিত হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন :  সপ্তাহজুড়ে ৭ কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা

এতে বলা হয়, কোভিড ১৯ মহামারির কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবেলায় এই অর্থ স্বাস্থ্য, সামাজিক সুরক্ষা ও সামষ্ট্রিক অর্থনীতি স্থিতিশীলতা, জরুরি ব্যালেন্স -অব পেমেন্টের চাহিদা এবং অর্থবছরের ঘাটতি মেটাতে সহায়ক হবে।

মহামারীর বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় এবং সামষ্টিক অর্থনীতির সম্ভাবনা ধরে রাখতে আইএমএফ কতৃপক্ষ বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

স্বাস্থ্যখাতে ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সরকারকে দ্রুত খাদ্য বিতরণ কার্যক্রম জোরদার করতে হবে, ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে নগদ সহায়তা, রফতানিমুখী শিল্পের শ্রমিকদের বেতন ভাতা পরিশোধ এবং ব্যবসায়ী ও কৃষকদের চলতি মূলধন সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে।

আরও পড়তে পারেন :  'স্বাস্থ্য খাতে চিহ্নিত দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে অভিযান জোরদার হবে'

আইএমএফ ঘনিষ্ঠভাবে বাংলাদেশ পরিস্থিতির প্রতি নজর রাখছে। প্রয়োজনে আরো পরামর্শ ও সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত রয়েছে। জরুরি অর্থায়ন যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার প্রতি গুরুত্বারোপ করেছে।

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

 

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here