প্রবাসীদের উপর মাসিক ফি বসানোর পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে সৌদি

0
19

ডেস্ক, বিনিয়োগবার্তা:

সৌদি আরবে বসবাসরত প্রবাসীদের উপর মাসিক ফি ও রেমিটেন্সের ওপর ট্যাক্স বসানোর যে চিন্তা ছিল তা কার্যকর হচ্ছে না। এ ধরনের পরিকল্পনা আপাতত সৌদি আরবের নেই বলে দেশটির একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন। খবর গালফ বিজনেসের।

এ ট্যাক্স বসানো হলে প্রবাসীদের আয় থেকে ৬ শতাংশ হারে টাকা কেটে নেওয়া হতো। এ বিষয়ে গত কয়েকমাস মজলিসে শুরার কাউন্সিলে আলোচনা চলছিল।

শুরা কাউন্সিলের সাবেক সদস্য হুসাম আল আঙ্গারি এই প্রস্তাব দেন। তিনি প্রস্তাবে জানান, প্রবাসীদেরকে তাদের আয় থেকে ৬ শতাংশ হারে অর্থ সরকারকে দিতে হবে। ধীরে ধীরে এই হার কমানো হবে। আগামী ৫ বছরে তা ২ শতাংশে নামে।

আঙ্গারির উদ্ধৃতির বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, ২০০৪ সালের পর থেকে প্রবাসীদের রেমিটেন্স ৩ গুণ বেড়েছে।

বিশ্ব ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫ সালের হিসাবে রেমিটেন্স পাঠানোর দেশের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পরেই সৌদির আরবের অবস্থান। যুক্তরাষ্ট্র থেকে এ বছর ৩ হাজার ৭০০ কোটি ডলারের রেমিটেন্সে বিভিন্ন দেশে পাঠানো হয়।

মোহাম্মদ আল তুবাইজরি নামের এক অর্থ বিশ্লেষক বলছেন, ট্যাক্স আরোপের সিদ্ধান্ত আপাতত থামিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সৌদি আরব মূলত তেলের দেশ। দেশটির ৭০ শতাংশ আয় আসে তেল থেকে। কিন্তু গত ২ বছরে আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যটিদের দাম প্রায় ৭০ শতাংশ নেমে যাওয়ায় ধরা খায় এর অর্থনীতি। এক বছরে দেশটির ঘাটতি বাজেট দাঁড়ায় প্রায় ১০ হাজার কোটি ডলার। এই ঘাটতি তুলতে এখন তেলের ওপর নির্ভরতা কমাতে চাইছে দেশটি।

গত সপ্তাহে সৌদি আরব আগামী বছরের বাজেট ঘোষণা করেছে। যেখানে প্রবাসী শ্রমিকদের উপর একটি মাসিক ফি ধরা হয়েছে। আগামী ৫ বছর এই ফি কার্যকর থাকবে।

বাজেট বক্তব্য অনুযায়ী, প্রবাসীদের ওপর নির্ভরশীল প্রত্যেক সদস্যপ্রতি ২০১৭ সালের জুলাই থেকে ১০০ রিয়েল করে ফি দিতে হবে। এটা বছরে বছরে বাড়ানো হবে। ২০১৮ সালের জুলাইতে এই ফি হবে ২০০ রিয়েল; ২০১৯ সালে হবে ৩০০ রিয়েল আর ২০২০ সালে হবে ৪০০ রিয়েল।

প্রবাসীদের হটিয়ে স্থানীয়দের জন্য কর্মসংস্থান বাড়াতে চায় সৌদি আরব। সে পরিকল্পনায় দেশটি প্রবাসীরা কাজ করে এমন কোম্পানির ওপরও এক ধরনের লেভি আরোপ করে; বছরে বছরে এ লেভিও বাড়বে বলে জানানো হয়।

গালফ বিজনেসের খবর অনুযায়ী, যেসব কোম্পানিতে প্রবাসীর সংখ্যা স্থানীয় নাগরিকদের সমান বা তার কম- তাদের জন্য ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানকে জনপ্রতি ৩০০ রিয়েল করে মাসিক ফি দিতে হবে। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে এটা হবে ৫০০ রিয়েল। আর ২০২০ সালের জানুয়ারিতে হবে ৭০০ রিয়েল।

স্থানীয়দের চেয়ে কোম্পানিতে প্রবাসী বেশি হলে ওই কোম্পানিকে জনপ্রতি ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে দিতে হবে ৪০০ রিয়েল; ২০১৯ সালে দিতে হবে ৬০০ রিয়েল এবং ২০২০ সালে হবে ৮০০ রিয়েল।
বিনিয়োগবার্তা/এইচকে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here