পরবর্তী প্রজন্ম গৌরবের ইতিহাস জানুক: প্রধানমন্ত্রী

40

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা চাই পরবর্তী প্রজন্ম ভাষা আন্দোলনের গৌরবময় ইতিহাসটি জানুক। বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিশ্ব অঙ্গনে আরো ছড়িয়ে দেয়ার ব্যাপারে আমাদের বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে।

বৃহস্পতিবার নগরীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার একুশে পদক -২০১০ বিতরণকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা বাঙালি। আমাদের সাংস্কৃতিক চর্চা অব্যাহত রাখতে হবে। আমাদের সাহিত্য ও সংস্কৃতি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যাতে আরো ছড়িয়ে পড়ে, সে ব্যাপারে বিশেষ মনযোগ দিতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, অন্যান্য ভাষা শেখার প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু নিজস্ব ভাষা (মাতৃভাষা) ভুলে যাওয়া উচিত নয়। অনেক মানুষকে অনেক কারণে বিদেশে থাকতে হয়। কিন্তু তাদের সর্বদা মাতৃভাষাকে সম্মান করতে হবে।

আরও পড়তে পারেন :  যুক্তরাষ্ট্রে দু’দিনে মারা গেছেন ১৫ বাংলাদেশি

‘একুশ (২১ শে ফেব্রুয়ারি) আমাদের মাথা নত না করা শিখিয়েছে। একুশ আমাদের আত্মসম্মানবোধ শিখিয়েছে,’ যোগ করেন তিনি।

১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারির রক্তপাতের কারণে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার পথ প্রশস্ত হয়েছিল উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একুশ আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবময় দিন। আমরা চাই আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম এই গৌরবময় ইতিহাসটি জানুক।

শেখ হাসিনা বলেন, তার সরকার চায় বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলা হিসাবে গড়ে উঠুক। আমরা বাঙালি। আমরা বাঙালি হয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে এগিয়ে যাব।

এর আগে, বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং একটি প্রতিষ্ঠানের মাঝে একুশে পদক-২০২০ বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়তে পারেন :  বিশ্ব মন্দা গ্রাস করবে না ভারত-চীনকে, বলছে জাতিসংঘ

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

 

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here