ন্যায্য মজুরি পরিশোধ না করায় ৫জনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের রুল

0
23

মো. শাহিদুল ইসলাম শাহিন, বেনাপোল প্রতিনিধি, বিনিয়োগ বার্তা:

শ্রমিকের ন্যায্য মজুরি পরিশোধ না করায় বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তপক্ষের চেয়ারম্যানসহ ৫জনের বিরুদ্ধে রুলজারি করেছে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশন।

যাদের ব্যাপারে রুল জারি করা হয়েছে তারা হলেন- বাংলাদেশ স্থলবন্দর চেয়ারম্যান, নৌ-পরিবহন সচিব, শ্রম ও কর্মসংস্থান সচিব, পরিচালক, বেনাপোল স্থলবন্দর, এসআইএস রসদ সিস্টেম (জেভি) ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

বাংলাদেশ স্থলবন্দর শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ মিজানুর রহমান বাদী হয়ে সুপ্রিম কোর্টে রীট পিটিশনটি দায়ের করেন।পিটিশন নম্বর-২৬৫১/২০১৭।

মামলার সূত্রে জানা যায়, সাধারণ শ্রমিকদের লোডং-আনলোর্ডি এর লেবার হ্যান্ডিলিং চার্জ শ্রমিক ও সরকারের মধ্যে ৬৫:৩৫ হারে বিভক্ত করে শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরি ৬৫% হারে প্রদান করার কথা। কিন্তু স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ তা বহাল না রেখে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে টন প্রতি ২৪:৫০ টাকা ও ভোমরা স্থলবন্দরে ১৬ টাকা হারে মজুরি প্রদান করছেন।

বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০১৬ উপধারা ১ এর প্রদত্ত ১৩৯ এর অধীনে বাংলাদেশ স্থল বন্দর শিল্প সেক্টর বলে উল্লেখিত নিম্নতর মজুরি বোর্ড কর্তৃক সুপারশকৃত শ্রমিকদের হার সরকার ও শ্রমিকদের মধ্যে ৫০:৫০ টাকা হারে প্রদানের কথা বলা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির আদেশ ক্রমে ২৫ অক্টোবর/২০১৬ তারিখে উপসচিব শাকিলা আহম্মেদ  উক্ত এসআরও গেজেট আকারে প্রকাশ করেন।

কিন্তু বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অমান্য করে শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার ও প্রাপ্য মজুরি পরিশোধ না করেই সকল কাজকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন।

ঠিক একই পদ্ধতিতে দেশের ১৩টি স্থলবন্দরে ন্যায্য প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে শ্রমিকরা।অভিযোগ মিজানুর রহমানের।

এবিষয়ে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তীর সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি অফিসের বাইরে আছেন এবং এখন কোন কথা বলা যাবে না বলে জানান।

পরবর্তীতে স্থলবন্দরের পরিচালক আমিনুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করলে রুল জারির বিষয়টি নিশ্চিত করেন। কিন্তু যতক্ষণ পর্যন্ত চিঠি হাতে না আসবে বিস্তারিত ভাবে কিছু বলা যাবেনা বলে তিনি জানান।

বিনিয়োগ বার্তা/এমআর

 

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here