দেড় মাসে ১ লাখ ৬৭ হাজার বিও হিসাব কমেছে

80

গত দেড় মাসে পুঁজিবাজারে ১ লাখ ৬৭ হাজার বিও হিসাব কমে গেছে। নির্ধারিত সময়ে রক্ষণাবেক্ষণ ফি পরিশোধ না করায় মূলত এসব হিসাব বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল) সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

পুঁজিবাজারে চলমান টানা মন্দাবস্থা, নতুন বাজেট ঘোষণার পরও বাজারে ইতিবাচক কোনো পরিবর্তন না আসা এবং প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) প্রবাহ কমে যাওয়ার কারণে সংশ্লিষ্ট হিসাবধারীরা বার্ষিক নবায়ন ফি পরিশোধ করেননি বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা।

সিডিবিএল এর পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ৩ জুন মোট বিও হিসাবের সংখ্যা ছিল ২৮ লাখ ৪৫ হাজার ২৬টি। গত ১৭ জুলাই তা কমে দাঁড়িয়েছে ২৬ লাখ ৭৭ হাজার ৫৩৯টি।

আরও পড়তে পারেন :  ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৭১.৫৬%

আলোচিত সময়ে পুরুষ বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ১ লাখ ২১ হাজার ২৪০টি কমে ১৯ লাখ ৫৫ হাজার ৪৫৬ জন হয়েছে। আর নারী বিনিয়োগকারী বা বিও হিসাবের সংখ্যা ৭ হাজার ৫৫ লাখ ৭৫ থেকে কমে ৭ লাখ ৪৯ হাজার ৫১ হয়েছে। নারী বিনিয়োগকারীর সংখ্যা কমেছে ৫০ হাজার ১২৪ জন।

উল্লেখ, বিও (Beneficiary Owner -BO) হিসাব হচ্ছে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য বিশেষায়িত হিসাব। একবার খোলার পর প্রতিবছর ৩০ জুনের মধ্যে নির্দিষ্ট ফি দিয়ে এই হিসাব নবায়ন করতে হয়, যা বিও হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ ফি নামে পরিচিত। বর্তমানে এই ফি’র পরিমাণ ৪৫০ টাকা। এর মধ্যে সিডিবিএল ১০০ টাকা, হিসাব পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান (ডিপি ব্রোকারেজহাউস ও মার্চেন্ট ব্যাংক) ১০০ টাকা, বিএসইসি ৫০ টাকা পেয়ে থাকে। আর বিএসইসির মাধ্যমে সরকারি কোষাগারে জমা হয় বাকী ২০০ টাকা।

আরও পড়তে পারেন :  ‘মালয়েশিয়া-সিঙ্গাপুরকে পেছনে ফেলবো’

 

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here