তিস্তায় রেড অ্যালার্ট জারি

0
55

নীলফামারী প্রতিনিধি, বিনিয়োগ বার্তা:
টানা চারদিনের ভারী বর্ষণ আর ভারতে গজলডোবার ৫৫টি গেট খুলে দেওয়ায় ভয়াবহ রূপ ধারন করেছে তিস্তা। ভারতের দৌমহনী থেকে তীব্রগতিতেপানি ধেয়ে আসায়তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৬৫ মেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে রবিবার (১৩ আগস্ট) সকাল থেকে রেড অ্যালার্ট (লাল সংকেত) জারি করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)। এতে আতঙ্কিত হয়ে পরেছে তিস্তা বেষ্টিত এলাকার মানুষজন।

তিস্তায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশের অংশে সবকটি জলকপাট (গেট) খুলে দেওয়া হলেও পানির গতি নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। এ জন্য ডিমলা উপজেলায় তিস্তাবেষ্টিত ১০টি ইউনিয়নের লোজজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া জন্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের নির্দেশ দিয়েছে পাউবো। আর সর্তকর্তার জন্য মাইকিং অব্যাহত রাখা হয়েছে।

এদিকে শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমের মাধ্যমে জানা গেছে, ভারতীয় সেচ মন্ত্রণালয় শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিস্তা নদীতে রেড অ্যালার্ট জারি করেছে।

নীলফামারীর ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজার রহমান জানান, তিস্তায় পানি বৃদ্ধিতে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। পানি বৃদ্ধির কারনে ডিমলা উপজেলার তিস্তা অববাহিকার গ্রাম ও চর এলাকায় মাইকিং করে মানুষজনকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। রাত ৯টায় তিস্তার পানি বিপদসীমার ৩৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ভারতের অংশে লাল সংকেত জারি করায় মানুষজনের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, অনেকেই বাড়ি-ঘড় ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছেন। পরিস্থিতি মোকাবেলায় সকল প্রস্তুতি রয়েছে।

জানা গেছে, ডিমলা উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয়নের বাইশপুকুরের একটি সাইটবাধ বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। একই ইউনিয়নের ছোটখাতা ও বানপাড়া গ্রামের ঘর-বাড়ি টিনের উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

বিনিয়োগ বার্তা //এল//

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here