জ্বালানি নীতি চায় বিজিএমইএ

0
66
বিজিএমইএ
বিজিএমইএ

ফেরদৌস, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-
শিল্প-প্রতিষ্ঠানের জন্য জরুরী ভিক্তিতে একটি জ্বালানি নীতি চায় পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ। সংগঠনের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেছেন, এই মূহূর্তে শিল্পের জন্য জরুরী একটি জ্বালানি নীতি প্রয়োজন। পাশাপাশি অবকাঠামো উন্নয়নের দাবি জানান তিনি।

আজ রোববার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আরএমজি সেক্টর এ অটোমেশনঃ অ্যানালাইসিস অন বাংলাদেশ ল্যান্ডস্কেইপ’ শীর্ষক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে আমরা ৫০ বিলিয়ন রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি। এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা অসম্ভব কিছু না। তবে এক্ষেত্রে কিছু সমস্যা রয়েছে। প্রথমেই অবকাঠামো উন্নয়ন করতে হবে। এছাড়া জরুরী জ্বালানি নীতি প্রয়োজন। এ ব্যাপারে সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন।

পোশাক খাতে আইটির ব্যবহার সম্পর্কে সিদ্দিকুর বলেন, আমরা সবক্ষেত্রেই এখন আইটির ব্যবহার করছি। বেতন-ভাতা থেকে শুরু করে সবকিছুর সমাধান আমরা সফটওয়্যারের মাধ্যমেই দিচ্ছি। তবে আইটি সেক্টরে দক্ষ লোকবলের অভাব রয়েছে।

সম্মেলনে সাংসদ নাহিম রাজ্জাক বলেন, বর্তমানে শীর্ষ পোশাক রপ্তারনিকারক দেশ চীন। চীন থেকে পোশাকের বাজার ছিনিয়ে আনতে হলে আমাদের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। এজন্য বিজিএমইএ ও বিকেএমইএকে উদ্যোগ নিতে হবে।

বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) ডিরেক্টর সেলিম মাহবুব বলেন, বর্তমানে আমাদের শিল্পে প্রচন্ড গ্যাস সংকট রয়েছে। তাই গ্যাসের বিকল্প জ্বালানি কি হতে পারে এ বিষয়ে আইটি বিশেষজ্ঞদের ভাবা উচিত।

অনুষ্ঠানে অন্যান্য আলোচকরা বলেন, পোশাক খাত থেকে রপ্তানি আয় ২০২১ সাল নাগাদ ৫০ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে। আর সেটি বাস্তবায়ন করতে হলে প্রয়োজন তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর তৈরি পোশাক খাত। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তৈরি পোশাক খাতে ৮১ শতাংশ ভ্যালু অ্যাড করা সম্ভব।

বেসিসের সাবেক সভাপতি ও সিএসএল সফটওয়্যার রিসোর্সেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল ইসলাম রাউলির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সুশান্ত কুমার সাহা, বেসিসের সাবেক সভাপতি হাবিবুল্লাহ এন করিম।

স্থানীয় বাজারে সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবার বাজার সম্প্রসারণ, প্রাইভেট খাতের ডিজিটালাইজেশন ত্বরান্বিত এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতামূলক বাজারের জন্য সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস(বেসিস) এ প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। ‘বিজটেক বিটুবি কনফারেন্স’, যা দেশের প্রথম ভিন্নধর্মী বিজনেস সল্যুউশন প্রদর্শনী। আজ সন্ধ্যায় শেষ হচ্ছে এই প্রদর্শনী ও সম্মেলন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here