কেরাণীগঞ্জে যৌতুকের বলি হলেন নিরিহ এক গৃহবধু

0
48

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জ উপজেলার জিনজিরা ইউনিয়নের নামাবাড়ি এলাকায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত রবিবার রাত ১১টার সময় বিথী (১৬) নামের এক গৃহবধুর মৃতদেহ উদ্ধার করে কেরাণীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, স্কুলে পড়া অবস্থায় নাদিম নামের ঐ ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে বিথীর। সম্পর্কের সাত মাসের মাথায় পরিবারের অসম্মতিতে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে নাদিম ও বিথী।পরে তাঁদের বিয়ের বিষয় মুঠোফোনে পরিবারের কাছে তাঁরা জানায়।

পরবর্তীতে যৌতুকের দাবীতে প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হতেন নাবালিকা স্কুল ছাত্রী বিথী।

পরিবারের অভিযোগ, ঘটনার দিন বিথীর স্বামী সৌদি যাবার কথা বলে বিথীর পরিবারের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে। পরবর্তীতে যা রুপ নেয় নির্যাতনের। ঝগড়া সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌছে গেলে বিথীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়।

এদিকে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই আলাউদ্দিন জানান, বিথীর থুঁতনির নিচে লালচে দাগ পাওয়া গেছে।

কেরাণীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, যেহেতু ভিকটিমকে যৌতুকের কারণে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে, তাই নারী শিশু আইনের ১১(ক) ধারায় মামলা করা হবে।

ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী নাদিম ও শ্বশুর জায়েদুল ইসলাম পলাতক রয়েছে। নাদিমের পবিবারের দুই সদস্যকে প্রাথমিক ভাবে আটক করা হয়েছে।

নিহতের লাশ ময়ণাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বিথী ফরিদপুর জেলার সাওতা থানার হায়দার আলীর মেয়ে। জিনজিরা পীর মোহাম্মদ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী ছিলেন বিথী।

আজ দুপুর ৩টায় রিপোর্টটি লেখার সময় নিহতের বাবা হায়দার আলী বাদী হয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানান পুলিশ।

বিনিয়োগ বার্তা/এমআর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here