কাসাঁ পিতলের পন্য নিয়ে শেয়ারবাজার মেলায় রাইট চয়েজ বিডি

714

পাস্টিকের যুগে কাসাঁ পিতলের পন্য যেন বর্তমান প্রজন্মের কাছে রূপকথার গল্পের মতো।  অথচ এক সময় আমাদের দেশে কাসাঁ ও পিতলের থালা বাসন সহ নানা পন্যের ঐতিহ্য ছিল বেশ। যুগে যুগে তা হারাতে বসেছে। কিন্তু তা হারাতে দিতে নারাজ রাইট চয়েজ বিডি নামের অনলাইন শপ। তারা এ ঐতিহ্যকে ধরে রেখে চলেছে।

প্রতিষ্ঠানটি ঐতিহ্যবাহী কাসাঁ পিতলের পন্য নিয়ে শেয়ারবাজার মেলায় স্টল (নম্বর-১৮) নিয়েছে।  আর তাদের এসব পন্যের পসরায় ক্রেতাদের আগ্রহের যেন কমতি ছিল না। ক্রেতা দর্শনার্থীদেরে উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে কাসাঁ পিতলের পন্যে সাজানো স্টল রাইট চয়েজ বিডিতে। রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালায় তিন দিন ব্যাপী ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপো ঘুরে এমন চিত্র লক্ষ্য করা গেছে।

আরও পড়তে পারেন :  ‘করোনার টিকার জন্য বিশ্ব ব্যাংকের কাছে ৫০ কোটি ডলার চেয়েছি’

প্রতিষ্ঠানটির বিষয়ে খোজ নিয়েছে জানা গেছে, আসলে রাইট চয়েজ বিডির কর্ণধার একজন সৌখিন মানুষ। তিনি ক্যাপিটাল মার্কেট সম্পর্কিত একটি কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন। ইট পাথরের শহরে বেড়ে উঠা স্বনামধন্য মানুষটি খুবই সাধারন ভাবে চলাফেরা করেন। একজন নিরহংকার এবং পরোপকারী মানুষ তিনি। একই সঙ্গে তিনি প্রকৃতি প্রেমীও। কর্মঘন্টার বাইরে তিনি সময় পেলেই ছুটে চলেন প্রকৃতির কাছাকাছি। আর এজন্য তিনি একটি রাজধানীর পাশেই গড়ে তুলেছেন গ্রীন একটি প্রজেক্ট। যেখানে গেলে মন ভালো হয়ে যায়। যেকোনো অসুস্থ মানুষও সুখ খুজে পায়। আর তা হলো রাজধানীর বেরাইদে মজুমদার গ্রীনারি। ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপোতে আগত দর্শনার্থীদের সঙ্গে ঐতিহ্যবাহী পণ্যের পরিচয় করিয়ে দেওয়াই হলো প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য।

আরও পড়তে পারেন :  ‘করোনার টিকার জন্য বিশ্ব ব্যাংকের কাছে ৫০ কোটি ডলার চেয়েছি’

পন্য সম্পর্কে প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার হরলাল চন্দ্র মজুমদার জানান, আমাদের কাঁসা, কপার ও পিতরের পণ্য রয়েছে। কাঁসার প্লেট, বাটি, মগের দাম ৬৯০ টাকা থেকে ৬ হাজার ৫০০ টাকা পর্যন্ত। কপারের গ্লাস, মগ রয়েছে ৫৫০ টাকা থেকে ৭৫০ টাকার। পিতলের গ্লাস, মগ, কলস রয়েছে ৫৫০ থেকে ৩ হাজার টাকার মধ্যে। এসব পন্য সব স্থানে পাওয়া যায় না বলে দর্শনার্থীদের কাছে আগ্রহ বাড়িয়ে তুলেছে। মেলায় বিক্রির চেয়ে তাদের কাছে তুলে ধরাই মূলত উদ্দেশ্য। তবে যে কেউ চাইলেই আমাদের এসব পন্য সম্পর্কে অনলাইনে (www.rightchoice.com.bd) ক্লিক করলেই দেখতে পারবেন।  আর আমরা মূলত এসব পন্য অনলাইনে বিক্রি করে থাকি।  অনলাইনে যেকোনো পন্য অর্ডার দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা ক্রেতাদের নিকট পৌছে দেয়া হয়। রাজধানীর মধ্যে হলে পৌছে দেয়ার চার্জ নেয়া হয় ৫০ টাকা এবং রাজধানীর বাইরে সেই চার্জ  ১০০ টাকা দিতে হয়।

আরও পড়তে পারেন :  ‘করোনার টিকার জন্য বিশ্ব ব্যাংকের কাছে ৫০ কোটি ডলার চেয়েছি’

রাইট চয়েজ বিডি ডট কম ডট বিডি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে দেখা যায়, শুধু কাসাঁ ও পিতলের পন্যেই নয়, সেখানে ইনডোর গার্ডেনিং, বেবিস জোন, হোম এ্যাপারেলস এবং মার্চেন্ট কর্নার রয়েছে। যে কোনো পন্য কিনে ক্যাশ অন ডেলিভারী, মাস্টার কার্ড, ভিসা কার্ড,  আমেরিকান এক্সপেশ, বিকাশ, ইসলামি ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, ডাচবাংলা ব্যাংক, রকেট, ফাস্টক্যাশ, কিউক্যাশের মাধ্যমে পন্যের বিল পরিশোধ করা যায়।

বিনিয়োগ বার্তা/ মাসুদ

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here