উস্কানিমূলক পোস্ট সরিয়ে দেবে ফেসবুক: জাকারবার্গ

36

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ শুক্রবার বলেছেন, তারা ফেসবুক থেকে এমন সব পোস্ট সরিয়ে ফেলবে যেগুলো হিংসা উস্কে দেয়। ওইসব পোস্ট যদি রাজনৈতিক নেতাদের কাছ থেকেও আসে তাহলেও এসব ঘৃণ্য বক্তব্য সম্বলিত পোস্ট সরিয়ে ফেলা হবে।

সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি পোস্ট সরিয়ে ফেলার পর এ নিয়ে স্পষ্ট ঘোষণা দিলেন জাকারবার্গ। যদিও সমালোচকরা মনে করছেন, তার এ ঘোষণা যথেষ্ট নয়।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদকারীদের নিয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিতর্কিত মন্তব্যের বিষয়ে ব্যবস্থা না নেয়ায় ব্যাপক নিন্দার মুখে পড়ে ফেসবুক।

আরও পড়তে পারেন :  উবার থেকে গাড়ি ভাড়া করবেন যেভাবে

শুধু বাইরের লোকজন নয়, প্রধান নির্বাহী জাকারবার্গের এমন বক্তব্যে হতাশ হয়েছিলেন ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মীরাও। ট্রাম্পের ওই বিতর্কিত মন্তব্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ায় জাকারবার্গের প্রতি ক্ষোভ জানিয়ে অনেক কর্মী তখন কর্মবিরতিও পালন করেছিলেন। এর জেরে ধরে কিছু কর্মী চাকরি ছাড়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

এ অবস্থায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাচনী বিজ্ঞাপনসহ তার সমর্থকদের একাধিক পোস্ট পেজ থেকে সরিয়ে দেয় ফেসবুক।

ওই ঘটনার দীর্ঘ এক সপ্তাহেরও বেশি সময় পর এ নিয়ে নিজের অবস্থান খোলসা করলেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী।

শুক্রবার টাউন হলে বক্তব্য দেয়ার সময় তিনি স্পষ্ট ভাষায় ঘোষনা করেন, ‘আমি আজ যে নীতিমালা ঘোষণা করছি তা সবার জন্য সমানভাবে প্রয়োগ করা হবে, এমনকি সকল রাজনৈতিক নেতাদের ক্ষেত্রেও।’

আরও পড়তে পারেন :  উবার থেকে গাড়ি ভাড়া করবেন যেভাবে

তবে তার এই ঘোষণাটি নাগরিক অধিকার নেতাদের সন্তুষ্ট করতে পারবে বলে মনে হয় না, যারা বছরের পর বছর ধরে ফেসবুকের এসব ঘৃণ্য পোস্টের বিরুদ্ধে সমালোচনা করে আসছেন।

ফেসবুক জানায়, গত ১৮ জুন বিদ্বেষমূলক প্রচারণার জন্য তারা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাচনী বিজ্ঞাপনসহ একাধিক পোস্ট নামিয়ে দিয়েছে। ফেসবুকের নীতিমালা লঙ্ঘিত হওয়ায় ওই পোস্টগুলো নামিয়ে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফেসবুক।

ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণার বিজ্ঞাপনে এমন একটি প্রতীক ব্যবহার করা হয়েছিলো যেটির সঙ্গে জার্মানির কুখ্যাত নাৎসি বাহিনীর প্রতীকের মিল রয়েছে। আর এ কারণেই ওই বিজ্ঞাপন নামিয়ে দিয়েছিল ফেসবুক।

আরও পড়তে পারেন :  উবার থেকে গাড়ি ভাড়া করবেন যেভাবে

বিজ্ঞাপনটিতে লাল রঙের একটি ত্রিভুজের চিহ্ন জুড়ে দিয়ে অ্যান্টিফা-বিরোধী পিটিশনে স্বাক্ষর করার জন্য বলা হয়েছিল। গত শতাব্দীতে রাজনৈতিক বন্দি চিহ্নিত করার জন্য জার্মান সেনারা এ ধরনের লাল চিহ্ন ব্যবহার করত। ফলে এটি অপসারণ করেছে ফেসবুক।

আরও পড়ুন আবারও ট্রাম্পের বিজ্ঞাপন সরালো ফেসবুক

সূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here