আজ মুখোমুখি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান

37

এবারের বিশ্বকাপে শিরোপা জিততে পারে এমন তিনটি দলের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া একটি। অন্য দুটি হচ্ছে ইংল্যান্ড ও ভারত। তবে ক্রিকেটের বিস্ময় পাকিস্তানকে খাটো করে দেখার সুযোগ নেই। দলটি সব সময়ই অননুমেয় (আনপ্রেডিক্টেবল)।

নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে টন্টনে আজ মুখোমুখি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান। যথারীতি এ ম্যাচেও আছে বৃষ্টির চোখরাঙানি। তবে ম্যাচ ভাসিয়ে দেয়ার মতো ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস নেই।

ইংল্যান্ডের আবহাওয়ার মতোই অননুমেয় পাকিস্তান। মোটা দাগে তাই অস্ট্রেলিয়া যতই ফেভারিট হোক, পাকিস্তানের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। সাবেক ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভন যেমন বলেছেন, ‘পাকিস্তান তাদের কোন চেহারাটা দেখাবে তার ওপর নির্ভর করছে সব।’

ভনের কথাটাই এই ম্যাচের ক্যাচলাইন। কখনও ছন্নছাড়া, কখনও দুর্বার- এটাই পাকিস্তান ক্রিকেটের চিরচেনা ছবি। মাঝামাঝি বলে কিছু নেই তাদের অভিধানে। এবারই যেমন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে শোচনীয় হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরুর পর দ্বিতীয় ম্যাচে হট ফেভারিট ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছে পাকিস্তান।

আরও পড়তে পারেন :  বিশ্বকাপে ওয়ার্নারকে ছাড়িয়ে আবারও শীর্ষে সাকিব

শ্রীলংকার বিপক্ষে পরের ম্যাচটা বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় তিন ম্যাচে তাদের সংগ্রহ তিন পয়েন্ট। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার ঝুলিতে চার পয়েন্ট। আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জোড়া জয়ের পর শেষ ম্যাচে আরেক ফেভারিট ভারতের কাছে ৩৬ রানে হেরেছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। সেই ধাক্কা সামলে আজ জয়ের ধারায় ফিরতে মরিয়া অ্যারন ফিঞ্চের দল।

ভারতের কাছে হারলেও অস্ট্রেলিয়ার আত্মবিশ্বাসে চিড় ধরেনি। তিন ম্যাচে দুটি করে ফিফটি করেছেন দলের দুই ব্যাটিং স্তম্ভ স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওর্য়ানার। ভারতের বিপক্ষে তারা ফিফটিকে সেঞ্চুরিতে রূপ দিতে পারলে পাশার দান উল্টে যেতে পারত। ওই ম্যাচে ৮৪ বলে ৫৬ রানের ধীরগতির ইনিংসের জন্য সমালোচিত হয়েছেন ওয়ার্নার।

৩৫৩ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় ৪৮টি ডট বল খেলার যন্ত্রণা লাঘব করতে আজ ঝড় তোলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন অসি ওপেনার। সতীর্থরাও তার পাশে আছেন।

আরও পড়তে পারেন :  তাপমাত্রা আরো বাড়বে

এক হারে উদ্বেগের কোনো কারণ দেখছেন না অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ‘কোনো কিছুই পরিবর্তন করার দরকার নেই আমাদের। ছোটখাটো কিছু বিষয় ঠিক করে নিলেই চলবে। আগের আত্মবিশ্বাস নিয়েই আমরা পাকিস্তানের বিপক্ষে নামব।’

ওয়ানডেতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাক্সওয়েলের ব্যাটিং গড় ৫৫। শেষ তিন ম্যাচে করেছেন যথাক্রমে ৭১, ৯৮ ও ৭০ রান। পাকিস্তানের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার রেকর্ডও ঈর্ষণীয়।

ওয়ানডেতে দু’দলের আগের ১০৩ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার ৬৭ জয়ের বিপরীতে পাকিস্তানের জয় মাত্র ৩২টি। দুই মাস আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৫-০তে হোয়াইট ওয়াশ হয়েছেন সরফরাজরা।

সবমিলিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে শেষ ১৪ ম্যাচের মাত্র একটিতে জিতেছে পাকিস্তান। কিন্তু স্বাগতিক ইংল্যান্ডতে হারিয়ে মোমেন্টাম পেয়ে যাওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিবর্ণ রেকর্ড নিয়ে একেবারেই ভাবিত নন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

‘অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খুব বেশি ম্যাচ আমরা জিতিনি। কিন্তু ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও আমাদের রেকর্ড খুব ভালো ছিল না। শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডকে আমরা হারিয়েছি। এতে দলের মধ্যে একটি ইতিবাচক আবহ তৈরি হয়েছে। আমরা এখন কোনো দলকেই ভয় পাই না। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবে পাকিস্তান। প্রতিপক্ষকে সমীহ করলেও আমরা প্রস্তুত’-যোগ করেন সরফরাজ।

আরও পড়তে পারেন :  আফগানিস্তানকে ২৬৩ রানের টার্গেট দিলো বাংলাদেশ

আজ সরফরাজের তুরুপের তাস হতে পারেন দুই পেসার ওয়াহাব রিয়াজ ও মোহাম্মদ আমির। গত বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়াহাবের সেই আগুনঝরা বোলিং এখনও অনেকের চোখে লেগে আছে। এবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও দেখা গেছে ওয়াহাবের বিধ্বংসী রূপ।

ওয়াহাবের মতোই নাটকীয়ভাবে বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়া আমিরও মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন। দুই ম্যাচে নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। ফিক্সিং-কাণ্ডে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ২০১৬ সালে এই টন্টনেই প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ফিরেছিলেন আমির। ফেরার ম্যাচে দারুণ বোলিংয়ে সমারসেটের বিপক্ষে নিয়েছিলেন তিন উইকেট। সেই সুখস্মৃতিই আজ ফিরিয়ে আনতে চাইবেন আমির।

বিনিয়োগ বার্তা//এল//

 

আপনার মতামত দিন :

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here